HalimBD.com

পিসিসি আইডি খোলার উপায়


পিসিসি বিডি অনলাইন আইডি খোলার জন্য সর্বপ্রথম রেজিষ্ট্রেশন ফরমটি সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে। আপনার নাম এবং মোবাইল নম্বর দিয়ে আপনি একটি পিসিসি অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। সেজন্য আপনাকে প্রতিটি ধাপ সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে। প্রথম ঘরে নাম ব্যবহার করুন দ্বিতীয় ঘরটি পূরণ না করলেও চলবে। তবে এই ঘরটি ব্যবহার করাই উত্তম। কারন ইমেইল নম্বর ব্যবহার করলে আপনি সহজেই আপনার আইডিটি ভেরিফাই করতে পারবেন। আপনার ইমেইলে অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করার জন্য একটি লিংক দেওয়া হয় । সেই লিংকে ক্লিক করে আপনি সহজেই পিসিসি আইডিতে প্রবেশ করতে পারবেন যা অনেকেই জানেন না। তৃতীয় ঘরটিতে আপনার মোবাইল নম্বর দিন। আর আপনি যদি আবেদনকারীর আইডি খুলে দিতে চান তাহলে আবেদনকারীর মোবাইল নম্বর এবং ইমেইল এড্রেস ব্যবহার করুন। পাসওয়ার্ড ঘরে সহজ পাসওয়ার্ড দিন যাতে সহজে মনে রাখতে পারেন। কনফার্ম পাসওয়ার্ড ঘরে পুনরায় পাসওয়ার্ডটি টাইপ করুন এরপর যোগফল ঘরে সঠিক সংখ্যা দিন। তারপর সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন। নতুন আইডি খোলার প্রথম ধাপ সঠিকভাবে পূরণ হয়েছে। এবার দ্বিতীয় ধাপের কাজ করতে হবে। আপনার আইডিটি ভেরিফাই করতে হবে। একাউন্ট ভেরিফাই করার নিয়ম দেখে নিন।

পিসিসি আইডি ভেরিফাই করার পদ্ধতি



পিসিসি আইডি ভেরিফাই করার জন্য রেজিষ্ট্রেশন ফরম পূরণ করার পর আপনার মোবাইলের ম্যাসেজ অপশনে গিয়ে সঠিক নিয়মে 6969 নম্বরে বার্তা পাঠিয়ে অথবা অনলাইন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স হেল্পডেস্কের নম্বরে ফোন করে আপনি আপনার পিসিসি আইডিটি ভেরিফাই করে নিতে পারেন। আর আপনি যদি রেজিষ্ট্রেশন ফরম পূরণ করার সময় আপনার ইমেইল এড্রেস ব্যবহার করেন তাহল উক্ত ইমেইলের মাধ্যমে আপনি আপনার একাউন্টটি সহজেই ভেরিফাই করে নিতে পারবেন।

পিসিসি আইডিতে প্রবেশ করার নিয়ম


পিসিসি আইডিতে প্রবেশ করার নিয়ম অবশ্যই আপনার জানা আছে এটা আমার বিশ্বাস। তারপরও বলছি যারার নতুন। Login বাটনে / Appy বাটনে / My Account বাটনে ক্লিক করলে প্রথমেই আপনার মোবাইল নম্বর চাইবে। মোবাইল নম্বর দেওয়ার পর পাসওয়ার্ড দিয়ে প্রবেশ করুন। যদি একাউন্ট খোলা না থাকে তাহলে পিসিসি একাউন্ট খুলে নিন। আর আপনার যদি একাউন্ট খোলা থাকে তাহলে আপনি যে ডিভাইসের মাধ্যমে অনলাইন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ওয়েব সাইটে প্রবেশ করতে চান সেই ডিভাইসে যদি ইন্টারনেট সংযোগ থাকে তাহলে আপনি অবশ্যই বাংলাদেশ পুলিশের অনলাইন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ওয়েব পেইজে প্রবেশ করতে পারবেন । আর আপনি যদি ইন্টারনেট জগতের অন্য সাইটে প্রবেশ করতে পারেন এবং শুধুমাত্র এই সাইটে প্রবেশ করতে না পারেন তাহলে বুঝতে হবে হয়ত সার্ভার ডাউন আছে। আপনি কিছুক্ষন অপেক্ষা করুন, তারপর পুনরায় চেষ্টা করুন। খুব বেশি প্রয়োজন হলে ফোন করে সেবা নিতে পারেন। আইটি হেল্পডেস্কে ফোন করুন।


পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে যা করবেন


আপনি যদি অনলাইন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ওয়েব পেইজের আপনার একাউন্টের পাসওয়ার্ড ভুলে যান তাহলে অনলাইন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আইটি হেল্পডেস্কের নম্বরে ফোন করে আপনার পাসওয়ার্ডটি রিসেট করে নিতে হবে। তারা আপনার মোবাইল নম্বরটি প্রাথমিকভাবে আপনার আইডিটি রিসেট করে দিবেন যাতে আপনি আপনার প্রোফাইলে প্রবেশ করে কাজ করতে পারেন। পরবর্তীতে আপনি পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে পারবেন। এখানে বলে রাখা প্রয়োজন যে, আপনি অবশ্যই সহজ একটি পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন যাতে করে আপনি খুব সহজেই মনে রাখতে পারেন। Read More

পিসিসির আবেদন বাতিল করা হয়েছে


একটি আবেদন বাতিল করার পিছনে অনেকগুলো কারণ থাকতে পারে। এতে হতাশ হওয়ার কিছু নেই। আপনার সাবমিট করা আবেদনটি যদি সংশ্লিষ্ট পুলিশ অফিস কর্তৃক বাতিল করা হয় তাহলে উক্ত আবেদন বাতিল করার পিছনে সঠিক কারণটি জানার চেষ্টা করুন। অনেক সময় রিমার্কস কলামে আবেদন বাতিলের কারণটি সংশ্লিষ্ট পুলিশ অফিস কর্তৃক লেখা থাকে। আপনি আবেদন সাবমিট করার সময় যে আইডি ব্যবহার করেছেন সেখানেই আবেদন বাতিলের কারণটি কারেন্ট স্ট্যাটাসে দেখতে পাবেন। কারণ অনুসন্ধানের পর আপনি একই চালান কপি দিয়ে পুনরায় আবেদনের কাজ করতে পারবেন। ব্যাংকে নতুন করে চালান জমা দেওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই। কিন্ত অনেকেই এই ভুলটি করেন। আবেদন বাতিল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তিনি পুনরায় আরেকটি নতুন চালান সংগ্রহ করেন যেটি ভুল সিদ্ধান্ত এবং অনর্থক অর্থের অপচয় হয়। আমার এই লেখাটি পড়ার পর নিশ্চই আপনার আর ভুল হবেনা। এবং অন্যকে এই ভুল কাজ করা হতে বিরত রাখবেন মর্মে বিশ্বাস করি। একটি কথা মনে রাখতে হবে যে, নতুন রেফারেন্স নম্বরটি অবশ্যই চালান কপির উপর লিখে দিতে হবে। আবেদন বাতিল হওয়ার কারণগুলো দেখে নিন।



Copyright © All Rights Reserved By Halim BD